শ্রী কেন লিখা হয়

শ্রী কেন লিখা হয়

FB_IMG_1486808375777
হিন্দু ধর্মীয় ভাইয়েরা আসুন জেনে নিই আমরা নামের পূর্বে
‘’ শ্রী ’’ ব্যবহার কেন করি??

“শ্রী” শব্দটি সংস্কৃত ভাষার সবচেয়ে ছোট শ্লোক । “শ্রী” শব্দে তিনটি অক্ষরের সন্নিবেশ হয়েছে । সুতরাং এটি একটি অক্ষর নয়, শব্দ । শ্রী অর্থে – ঐশ্বর্য, সৌভাগ্য, সৌন্দর্য, লাবণ্য, শোভা প্রভূতি । নামের পুর্বে শ্রী লেখার অর্থ আপনি উপরোক্ত বিশেষনে ভুষিত । অন্যার্থে আপনি উপরোক্ত অর্থে শ্রীযুক্ত হোন বলে আর্শীবাদ। শ্রদ্ধা ভক্তি প্রকাশের ক্ষেত্রে গ্রন্থ বা ব্যক্তির নামের পুর্বে অতিরিক্ত শ্রী যুক্ত করে প্রকাশ করা হয় । সনাতন ধর্মে আমরা আশা করি -সকলেই সৌভাগ্যবান, শোভা, সম্পদশালী হোন ।।

এজন্যই আমাদের প্রার্থনা মন্ত্রে আছে- সর্বে ভবস্ত্ত সুখিনঃ, সর্বে সন্ত্ত নিরাময়াঃ । সর্বে ভদ্রাণি পশ্যন্ত্ত, মা কশ্চিদ দুঃখভাগ্ ভবেৎ।।
অনুবাদঃ
সকলেই সুখী হোক, সকলেই নিরাময় থাকুক । সকলে শুভ দেখুক, কেউ যেন দুঃখ ভোগ না করে ।।
শ্রী লেখা শাস্ত্রীয় বিধান নয়, এটা সামাজিকভাবে হিন্দু সমাজে প্রচলিত হয়েছে । নিজের নাম স্বাক্ষরের পুর্বে শ্রী লেখা সঙ্গত। কারন ‘শ্রী’ জীবিত ব্যক্তির নামের পুর্বে বসে । যে ব্যক্তি নিজেই স্বাক্ষর করবে সে তার জীবদ্দশায় সহিত করেছে এটা তার প্রমাণ হবে।।

জয় গীতা

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন

এই পোস্টটিতে ১টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. খুব ভাল বলেছেন।

মন্তব্য করুন

সাবমিট

© বাংলাদেশ সনাতনী সেবক সংঘ | সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত

Powered by Smart Technology